বরিশালে অপ্রয়োজনীয় দোকান খোলা রাখায় ৬ দোকানকে জরিমানা

এপ্রিল ১৩ ২০২০, ০৯:৩৯

বার্তা বরিশাল ডেস্ক ॥ বরিশাল জেলা প্রশাসনের নিয়মিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ ১৩ এপ্রিল সোমবার সকাল থেকে বরিশাল মহানগরীর চৌমাথা, নথুল্লাবাদ, আমতলার মোড়, সাগরদী, রুপাতলী, নবগ্রাম, আমতলার মোড়, রায়পাশা কড়াপুর এলাকায় জেলা প্রশাসন বরিশাল এর পক্ষ থেকে মোবাইল কোর্ট এর অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযান চলাকালে জনসমাগম করে অপ্রয়োজনীয় দোকান খোলা রাখার অপরাধে চারটি দোকানকে ৬ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়কে, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অধিক মানুষের সমাগম এবং চায়ের দোকানসহ অপ্রয়োজনীয় দোকান খোলা রাখা থেকে বিরত থাকার নির্দেশনা পালনের পাশাপাশি গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এস, এম, অজিয়র রহমানের নির্দেশনায় মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করা হয়।

মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ নাজমূল হুদা এবং এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সাইফুল ইসলাম। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সম্পর্কে গণসচেতনতা কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি এ সময় বিভিন্ন টি-স্টল, মুদি দোকান ও এলাকার মোড়ে মোড়ে যেখানেই জনসমাগম দেখা গেছে তা ছত্রভঙ্গ করা হয় এবং নিরাপদ দূরত্বে চলার নির্দেশনা, মাক্স পরার নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

পাশাপাশি সবাইকে যৌক্তিক প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে আসতে নিষেধ করা হয় এবং এ আদেশ অমান্যাকরীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়ে দেয় এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট। এসময় মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনায় নেতৃত্ব প্রদান করেন বরিশাল জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ নাজমূল হুদা।

অভিযান পরিচালনা এসময় নগরীর বাংলাবাজার এলাকায় অপ্রয়োজনীয় দোকান খোলা রেখে জনসমাগম করে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত না করে আড্ডা দেয়ার অপরাধে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন ২০১৮ এর ২৫ (১) ধারা মোতাবেক মোঃ রিয়াজ নামের এক ব্যক্তি কে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

সাগরদী বাজার এলাকায় অপ্রয়োজনীয় দোকান খোলা রেখে জনসমাগম করার অপরাধে একই আইনে রিপন কে ২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। পাশাপাশি আমতলা মোড় এলাকায় অপ্রয়োজনে রাস্তায় বের হয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় না রাখার অপরাধে একই আইনে আবু সুফিয়ান নামের এক যুবকের ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

এসময় প্রসিকিউসন অফিসার হিসাবে স্যানিটারি অফিসার ও নিরাপদ খাদ্য ইন্সপেক্টর মোঃ জাকির হোসেন সহযোগিতা করেন। এসময় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় সহযোগিতা করেন এএসপি মুকুর চাকমা সহ র‍্যাব ৮ এর সদস্যরা।

অপরদিকে বরিশাল মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জেলা প্রশাসকের কার্যালয় বরিশাল মোঃ সাইফুল ইসলাম।

অভিযানকালে তিনি নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক সচেতনতা মূলক প্রচারণা চালানোর পাশাপাশি সবাইকে যৌক্তিক প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে আসতে নিষেধ করা হয় এবং এ আদেশ অমান্যাকরীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়।

এসময় তিনি নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় তিনি নবগ্রাম রোডে রুইয়ার পোল এলাকায় একটি মুদি দোকানের সামনে জনসমাগম করে আড্ডা দেয়ার অপরাধে দোকান মালিককে দন্ডবিধি ১৮৬০ এর ২৬৯ ধারা মোতাবেক ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

এসময় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় সহযোগিতা করেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ এর সদস্যরা। অভিযান শেষে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটদ্বয় বলেন, জনগণকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষায় জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এস, এম, অজিয়র রহমান সদা সচেষ্ট এবং তাঁর নির্দেশনায় নিয়মিত এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।