দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব আজ চরম সংকটাপন্ন : মুফতি ফয়জুল করীম

নভেম্বর ২৩ ২০২০, ১২:১৮

বার্তা বরিশাল ডেস্ক॥ ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর মুহতারাম সিনিয়র নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করিম (শায়েখে চরমোনাই) বলেছেন, “দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব আজ চরম সংকটাপন্ন। ভিনদেশী ও সাম্রাজ্যবাদের তাবেদাররা শাসকের ভূমিকায় থেকে প্রতিনিয়ত শোষণ করছে। অশুভ, অসভ্য, ভারতীয় ও পশ্চিমা সংস্কৃতির আগ্রাসনের ফলে প্রতিনিয়ত সমাজে ঘটছে নৈতিকতার চরম অবক্ষয়। এভাবে একটা সমাজ, জাতি কিংবা রাষ্ট্র চলতে পারেনা।”

আজ (২৩ নভেম্বর) সোমবার সকাল ৯ টায় শরীয়তপুর সদর পৌরসভা অডিটোরিয়ামে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন শরীয়তপুর জেলা শাখার উদ্যোগে “ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড প্রতিনিধি সম্মেলন’২০” অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন৷

জেলা সভাপতি হুসাইন মুহাম্মাদ ইলিয়াস এর সভাপতিত্বে ও জেলা সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ সাইফুল ইসলাম এর সঞ্চালনায় উক্ত “ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড প্রতিনিধি সম্মেলন’২০” অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইশা ছাত্র আন্দোলন এর সেক্রেটারি জেনারেল মেধাবী ছাত্রনেতা নুরুল করীম আকরাম৷ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ শরীয়তপুর জেলা শাখার সংগ্রামী সভাপতি মাওলানা শওকত আলী ৷

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করিম বলেন, ইসলাম ও পাশ্চাত্য সভ্যতার দ্বন্দ্ব চিরন্তন। পশ্চিমাবিশ্ব নানান কূটকৌশলে ইসলামের রাজনৈতিক দর্শনকে বিশ্বব্যাপী বিতর্কিত করার অপপ্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে।
পাশ্চাত্য ও ইসলাম বিদ্বেষী শক্তি ইসলামের সুমহান কালজয়ী আদর্শকে দৃষ্টির আড়ালে রাখতে সর্বদা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। মুছে ফেলতে চায় মুসলিম জাতীর সোনালী ও গৌরবময় খেলাফত এবং রাষ্ট্র পরিচালনার বিশ্বজনীন ইতিহাস-ঐতিহ্যের ধারা। তাই আজ আমাকে ও আপনাকে সচেতন হতে হবে। নিজস্ব সংস্কৃতি, বোধ ও বিশ্বাস নিয়ে নবউদ্যমে জাগ্রত হতে হবে। সকল ভিনদেশী সংস্কৃতিকে উপেক্ষা করে দেশীয় সংস্কৃতি, ইসলাম ও বাঙালিয়ানাকে বুকে ধারণ করে নিজস্ব ইতিহাস-ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে নিয়েই নিজেদের মতো বাঁচতে চাই। আমরা স্বকীয়বোধ ও বিশ্বাসকে ধারন করে আমাদের স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়তে চাই।

প্রধান বক্তা তার বক্তব্যে বলেন, দেশে সকল ধরণের অন্যায়-অনিয়ম দূর করে, মনুষ্যত্ব ও নীতি-নৈতিকতা ফিরিয়ে আনার জন্যই, এদেশের ইসলামী রাজনীতির প্রাণপুরুষ আল্লামা সৈয়দ মুহাম্মাদ ফজলুল করীম, হযরত পীর সাহেব হুজুর চরমোনাই (রহ.) ১৯৯১ সালের ২৩শে আগষ্ট ইসলাম, দেশ, জাতী ও মানবতার অতন্দ্র প্রহরী ও প্রকৃত দেশ প্রেমিক তৈরীর কারখানা, ত্রিধারার শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে গঠিত ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। প্রতিষ্ঠার পর থেকে স্বপ্ন, সম্ভাবনার ২৯ বছরের বিপ্লবী পদযাত্রার সংগঠনটি দেশের ত্রিধারার শিক্ষার্থীদেরকে নৈতিকতা গঠন ও নেতৃত্ব বিকাশে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। দেশের জাতীয় নেতৃত্ব তৈরীতে সংগঠনের নেতা কর্মীরা টার্গেট ভিত্তিক কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মুজাহিদ কমিটি শরীয়তপুর জেলা শাখার ছদর হাফেজ কেরামত আলী, জাতীয় ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদ শরীয়তপুর জেলা শাখার আহবায়ক মুফতি ফেরদাউস আহম্মেদ, জাতীয় শিক্ষক ফোরাম শরীয়তপুর জেলা শাখার সভাপতি ড. আবু জাফর মুহাম্মাদ সালেহ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ শরীয়তপুর জেলা শাখার সেক্রেটারী মাওলানা হাফিজুর রহমান, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন শরীয়তপুর জেলা শাখার সভাপতি মুহাম্মাদ আয়াত আলী, বাংলাদেশ কুরআন শিক্ষা বোর্ড শরীয়তপুর জেলা শাখার সভাপতি মুহাম্মাদ লোকমান বিন সালেহ, ইসলামী যুব আন্দোলন শরীয়তপুর জেলা শাখার সভাপতি মুহাম্মাদ ইমরান হুসাইন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ শরীয়তপুর জেলা শাখার ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক, মুহাম্মদ হযরত আলী। ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন শরীয়তপুর জেলা শাখার সহ-সভাপতি মুহাম্মাদ আশিক মাদবর , প্রশিক্ষন সম্পাদক মুহাম্মাদ সাদ্দাম হোসেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মুহাম্মাদ মফিজুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক মুহাম্মাদ রাসেল আহমেদ, দফতর সম্পাদক এম এ রহিম, কওমি মাদ্রাসা বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মাদ আবু নাইম, আলিয়া মাদ্রাসা বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মাদ শাহিন আলম,স্কুল বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মুমিন,কলেজ বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মাদ আবু বক্কর, ছাত্র কল্যান সম্পাদক মুহাম্মাদ শফিকুল ইসলাম, সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মাদ মাসুম,মজলিসে আমেলার সদস্য মুহাম্মাদ নুরে আলমসহ থানা নেতৃবৃন্দ।