দেশে আইনের শাষন ও ন্যায় বিচার নেই : সরোয়ার

ডিসেম্বর ২১ ২০২০, ১৪:৪১

তালাশ প্রতিবেদক ॥ বিএনপির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও বরিশাল মহানগর সভাপতি এ্যাড, মজিবর রহমান সরোয়ার বলেছেন, আজকের আওয়ামী লীগের কাছে দেশের স্বধীনতা,গণতন্ত্র,দেশের সিমান্ত ও মানুষের জা নমাল সম্পদ কোন কিছুই নিরাপদ নয়। এই ব্যার্থ সরকার আজকে দেশের মানুষকে রক্ষা করতে পারছে না শুধু মাত্র অবৈধ ভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য দেশের সবকিছু ভারতের কাছে বিলিয়ে দিচ্ছে । ভারতকে আমাদের সরকারের পরম বন্ধু বানিয়ে দেশের অনেক সম্পদ দেয়ার পরও তারা নির্বিচারে সিমান্তে পাখির মত মানুষ হত্যা করে যাওয়ার পরও আমাদের সরকারের কন্ঠে কোন প্রতিবাদ নেই। এই সরকারের সময়ে আমাদের সিমান্ত প্যালেস্টাইনের চেয়েও খারাপ অবস্থা বিরাজ করছে। প্রধানমন্ত্রী বিএসএফের গুলি থামাতে পারছে না। আমরা উন্নয়ন চাই তবে দেশের গণতন্ত্র হত্যা করে নয়। আজ দেশে গণতন্ত্র নেই বলে আজ দেশের মধ্যে কোন জবাব দিহীতা নেই। নেই আইনের শাষন ও ন্যায় বিচার।

 

সোমবার (২১) ডিসেম্বর সকাল ১১টায় সদররোডস্থ জেলা ও মহানগর বিএনপি দলীয় কার্যলয়ের সামনে কেন্দ্রীয় বিএনপি’র কর্মসূচির অংশ হিসাবে বরিশাল মহানগর বিএনপি আয়োজিত সিমান্তে বি.এস.এফ কর্তৃক বাংলাদেশীদের হত্যার প্রতিবাদে কালো পতাকা উত্তোলন ও কালো ব্যাজ ধারন কর্মসূচির প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপি সিনিয়র সহ-সভাপতি মনিরুজ্জামান খান ফারুক,সহ-সভাপতি আব্বাস উদ্দিন বাবলু, রফিকুল ইসলাম রুনু সরদার), যুগ্ম সাধারন আনায়ারুল হক তারিন, সৈয়দ আকবর হোসেন,মহানগর যুবদল সম্পাদক মাসুদ হাসান মামুন, জেলা যুবদল সভাপতি এ্যাড, পারভেজ আকন বিপ্লব, মহানগর সিনিয়র যুবদল সহ-সভাপতি কামরুল হাসান রতন,আসাদুজ্জামান মারুফ,আসাদুজ্জামান তৌহিদ,জাহিদুল ইসলাম সমির,রাসেদুজ্জামান রাসেদ সহ মহিলা দল এবং বিভিন্ন মহানগরের অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃদ।

 

সরোয়ার এসময় আরো বলেন, সরকার দেশের সাধারন মানুষকে বোকা বানিয়ে উন্নয়নের নামে কোটি কোটি টাকা রুন্ঠন করে দেশের বাহিরে পাচার করছে। তাই আগামী দিনে এই সরকারের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন ছাড়া কোন বিকল্প নাই। এই জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধতা বজায় রেখে সকলকে এক হয়ে রাজপথে থাকার আহবান জানান। এর পূর্বে মজিবর রহমান সরোয়ার দলীয় কার্যলয়ের সামনে আসলে মহানগর বিএনপি সিনিয়র সহ-সভাপতি কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব সরোয়ারের বুকে কালো ব্যাজ পড়িয়ে দেয়ার মাধ্যমে কর্মসূচির উদ্ধোধন করা হয়।