নগরীর রূপাতলীতে ওয়াকফ্ এস্টেটের জমিতে জোড়পূর্বক থাবা!

ডিসেম্বর ২৩ ২০২০, ১৫:৫৬

বার্তা বরিশাল প্রতিবেদক ॥ বরিশাল নগরীতে দিন-দুপুরে ওয়াকফ্ এস্টেটের স্বত্বভোগী ওয়ারিশদের জমি জোড়পূর্বক দখল করে মাটি কাটার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় আইনী সহায়তা পেতে ভুক্তোভোগী অহসায় ওয়ারিশের পক্ষে রকিব উদ্দিন মৃধা (পিয়াল) লিখিত অভিযোগের মাধ্যমে থানা পুলিশের দারস্ত হলে পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ভেকু দিয়ে মাটি কাটার কাজ বন্ধ করে দেয়। অভিযোগ সূত্রে জানায়, নগরীর ২৪নং ওয়ার্ড রূপাতলী মৌজায় পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে কাজী বাড়ির ভিতর ঢুকতে ডান পাশে মৃত জহির মৃধা ওয়াকফ্ এস্টেটের সম্পত্তির দলিলে থাকা স্বত্বভোগী ওয়ারিশ হিসেবে দীর্ঘ বছর যাবত ভোগ দখল করে আসছে অভিযোগকারীরা।

 

অভিযোগকারী রকিব উদ্দিন মৃধা (পিয়াল) এর বাবা অসুস্থ্য থাকাকালীন সময়ে ওয়াকফ্ এস্টেটের দলিল শর্তে থাকা সম্পত্তির ১৬আনার ৪আনা অংশ হিসেব মতে তিনি সহ তাদের অন্যান্য ওয়ারিশগণ ভোগ দখল করে আসছিলো। পরবর্তীতে তার বাবার মৃত্যুর পর উক্ত সম্পত্তি দলিলের অংশ হিসেবে সঠিক বন্ঠনের জন্য মাপার কথা যুগ্ম মোতয়াল্লীদের কাছে বললে তারা সেই কথার কোণ কর্ণপাত করেনি। জমি বন্ঠনের কথা তাদের কাছে বলায়, মোঃ নাসির মৃধা (৫২) মোঃ আব্দুস সালাম মৃধা (৫৪) উভয় পিতাঃ মৃত ফজলে আলী মৃধা, মোঃ মন্নান মৃধা (৩৯) পিতা মৃতঃ খলিল মৃধা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং প্রাণনাশ সহ বিভিন্ন হুমকী প্রদান করে। এ বিষয়ে চলিত বছরের ২৪মার্চ কোতয়ালী মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করে রকিব উদ্দিন মৃধা (পিয়াল) (যার নং-১১৯০)। পরবর্তীতে গতকাল ২৩ডিসেম্বর বিবাদীরা ভুক্তোভোগীদের সম্পত্তিতে অনাধিকার প্রবেশ করে ভেকু দিয়ে মাটি কাটা চলমান রেখে ফসলি জমি নষ্ট করে। এসময় ওয়ারিশগণ প্রতিবাদ করলে পুনরায় তাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং বিভিন্ন মামলা মোকাদ্দমা দেয়ার ভয়ভীতি দেখায়। মাটি কাটা নিষেধ করলে ৩ নং বিবাদী মোঃ সুজন (৩৮) পিতাঃ মৃত আমিরুজ্জামান বলে আমরা উক্ত সম্পত্তি সালাম মৃধা ও নাসির মৃধার কাছ থেকে লিজ নিয়েছি। এসময় সুজনের কাছে লিজের কাগজ দেখতে চাইলে কাগজ না দেখিয়ে উল্টো ভয়ভীতি দেখায় এবং জানান দেয় “মাটি কাটা চলবে, পারলে কেউ জানি বন্ধ করে”।

 

এবিষয়ে অভিযোগকারী দৈনিক আজকের তালাশকে জানায়, “আমরা উক্ত সম্পত্তির মৃত জহির মৃধা ওয়াকফ্ এস্টেটের স্বত্বভোগী ওয়ারিশ। আমাদের অংশের জমি জোড়পূর্বক দখল করে ওয়াকফ্ আইন ও নির্ধারিত দলিল শর্তের কোন তোয়াক্কা না করে নাসির মৃধা ও সালাম মৃধা উক্ত জমি লিজ দিয়ে ভেকু দিয়ে মাটি কাটার কাজ শুরু করেছে।” তিনি আরও বলেন, “এবিষয়ে আমরা তাদেরকে অসংখ্যবার জমি সঠিক বন্টনের জন্য বৈঠকের আহবান করলেও তারা আমাদের কথা কর্ণপাত না করে তাদের কাজ চালিয়ে যায়। আমরা উপায় না পেয়ে আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে কোতয়ালী মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করি।”

কোতায়ালী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মো. রিয়াজুল দৈনিক আজকের তালাশকে জানায়, “থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পরে থানা থেকে তাৎক্ষণিক আমাকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়, আমি গিয়ে মিমাংসা না হওয়া পর্যন্ত মাটি না কাটার জন্য অনুরোধ করলে তারা মাটি কাটার কাজ বন্ধ রেখে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে মিমাংসার জন্য বসার সিদ্ধান্ত নেয়।”

 

এদিকে অভিযোগের বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত আব্দুস সালাম মৃধাকে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করতে চেষ্ঠা করা হলে তা রিসিভ হয়নি। বিস্বস্ত একটি সূত্রে আরও জানা যায়, চলিত বছরের ৮অক্টোবর সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও সার্টিফিকেট অফিসার বরিশাল সদর বরিশাল এর আদালতে উক্ত জমির উপর একটি সার্টিফিকেট মামলা (যাহার নং-০১/২০২০-২০২১) এর একটি নোটিশে উল্লেখ রয়েছে যে, উক্ত সম্পত্তি যাবৎ নির্ধারিত ভূমি উন্নয়ন কর বাবদ টাকা জমা না হয় তাবৎ দান, বিক্রয় বা বন্ধক রাখতে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হয়েছে।