নতুন স্কুল না করে বাকিগুলো জাতীয়করণের দাবি

জানুয়ারি ১৯ ২০২১, ০৭:৫৫

পটুয়াখালী প্রতিবেদক॥ সারাদেশে বাদ পড়া বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো জাতীয়করণের দাবিতে রাজধানীতে মানববন্ধন হয়েছে। মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ৩য় ধাপে বাদ পড়া সকল বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দের ব্যানারে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

 

পরে শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে স্মারকলিপি দিতে যান।

 

মানববন্ধনে নেত্রকোনা সদর উপজেলার চন্দ্রপতিখিলা বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা নিগার সুলতানা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ, সারাদেশে বাদ পড়া বেসরকারি স্কুলগুলো জাতীয়করণের ঘোষণা দিয়ে আমাদের কষ্ট দূর করুন। আমাদের চাকরি আছে বেতন নেই। তারপরও স্কুলের ছেলে-মেয়েদের দিকে তাকিয়ে পাঠদান করে যাচ্ছি। আমরা করোনার মাঝে মানবেতর জীবনযাপন করছি। আমাদের স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা উপবৃত্তি পায় না, কোনো ধরনের সুযোগ-সুবিধাও পায় না। যখন ছোট ছোট ছেলে-মেয়েরা এসে আমাদের এসব বলে তখন খুব কষ্ট লাগে। তাই প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের একটাই দাবি, নতুন করে স্কুল স্থাপন না করে বাদ পড়া স্কুলগুলোকে জাতীয়করণের ঘোষণা দিন।

 

আবু জাফর ইকবাল নামে আরেকজন বলেন, গত ৬ জানুয়ারি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটি দেশে ২ কিলোমিটারের মধ্যে স্কুল না থাকলে নতুন করে স্থাপনের সুপারিশ করেছেন। কিন্তু আমরা যারা বছরের পর বছর জাতীয়করণের আশায় বেসরকারি স্কুলে পড়িয়ে যাচ্ছি তারা এ করোনার সময়ে অনেক কষ্টে দিন পার করছি। আমরা বারবার দাবি জানিয়ে আসছি, আমাদের স্কুলগুলো জাতীয়করণ করা হোক। তাই আজকে আমরা এখানে এসেছি যাতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে আমাদের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ হয়।

 

এ সময় সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল, দিনাজপুর, বরিশাল, পটুয়াখালী, নেত্রকোনাসহ দেশের সকল জেলার বেসরকারি স্কুলের প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষক-শিক্ষিকা উপস্থিত ছিলেন।